৫. মুদ্রা জোড়ের কেনা বেচা

ফরেক্স ট্রেডিং হল একসাথে একটি কারেন্সি কেনা এবং অন্যটি বিক্রয় করা। কারেন্সি ট্রেড সাধারণত ব্রোকার বা ডিলারের মাধ্যমে এবং জোড়ায় ট্রেড হয়। উদাহরণস্বরূপ ইউরো এবং ইউ এস ডলার (EUR/USD) অথবা ব্রিটিশ পাউন্ড এবং জাপানি ইয়েন (GBP/JPY)। মনে করেন প্রত্যেকটা মুদ্রা জোড় সব সময় একজন আর একজনের সাথে “দড়ি টানাটানি” খেলতেসে। বিনিময় হারের অস্থিরতা দেখা যায় যখন এক মুদ্রা সময় এর সাথে, অন্য মুদ্রা থেকে শক্তিশালি হয়ে যায়। বাজারে দুই ধরনের মুদ্রা জোড় দেখা যায়। এগুলো হলোঃ
  1. মেজোর মুদ্রা জোড়
  2. মাইনর মুদ্রা জোড়
মেজোর মুদ্রা জোড় যেগুলো মুদ্রা জোড় গুলো মধ্যে কোন এক পাশে ইউ এস ডলার (USD) সেগুলোকে মেজোড় মুদ্রা জোড় বলা হয়। এই মুদ্রা জোড় গুলোই খুব বেশি পরিমান ট্রেড করা হয়ে থাকে। নিচের মুদ্রা জোড় গুলোকে “মেজোরস” বলা হয়ে থাকে। ১. EUR/USD(ইউরো/ইউ এস ডি) ২.USD/JPY(ইউ এস ডি/জাপান) ৩.GBP/USD(ইউনাইটেড কিংডম/ইউ এস ডি) ৪.USD/CHF(ইউ এস ডি/সুইজারল্যান্ড) ৫.USD/CAD(ইউ এস ডি/কানাডা) ৬.AUD/USD(অস্ট্রেলিয়া/ইউ এস ডি) ৭.NZD/USD(নিউজিল্যান্ড/ইউ এস ডি) মাইনর মুদ্রা জোড় যেগুলো মুদ্রা জোড়ের মধ্যে ইউ এস ডলার থাকেনা সেগুলোকে বলা হয়ে মাইনর মুদ্রা জোড়। এগুলোকে ক্রস মুদ্রা অথবা “ক্রসেস” বলা হয়ে থাকে। মেজোর ক্রোসেস গুলো “মাইনরস” নামেও পরিচিত। EUR, JPY ও GBP এই ৩ মেজোর যুক্ত ক্রসেস গুলোতে সবচেয়ে বেশি ট্রেড হয়ে থাকে। ইউরো ক্রসেসঃ EUR/CHF, EUR/GBP,EUR/CAD,EUR/AUD,EUR/NZD,EUR/SEK,EUR/NOK ইয়েন ক্রসেসঃ EUR/JPY,GBP/JPY,CHF/JPY,CAD/JPY,AUD/JPY,NZD/JPY পাউণ্ড ক্রসেসঃ GBP/CHF,GBP/AUD,GBP/CAD,GBP/NZD অন্যান্য ক্রসেসঃ AUD/CHF,AUD/CAD,AUD/NZD,CAD/CHF,NZD/CHF,NZD/CAD বহিরাগত(এক্সটিক) জোড়ঃ এই ক্রস গুলো হল মেজোর মুদ্রা গুলার সাথে এমন দেশের মুদ্রা জোড় হিসেবে থাকে যেগুলো দেশের অর্থনীতি এখনও উদীয়মান। যেমনঃ ব্রাজিল, মেক্সিকো, হাঙ্গারি। এই জোড় গুলোতে তেমন ট্রেড করা হয় না তারপরেও এই জোড় গুলোর সম্পর্কে জানা থাকা উচিত। খুব বেশি ট্রেড করা হয় না বলে এই জোড় গুলোতে লেনদেনের খরচ খুব বেশি। এই জোড় গুলো হলোঃ USD/ZAR, USD/THB, USD/MXN, USD/DKK, USD/SEK, USD/NOK, USD/RUB, USD/PLN, USD/BRL, USD/HKD, USD/SAR, USD/SGD। এই জোড় গুলোর স্প্রেডের অঙ্ক বেশি হয়ে থাকে, সুতরাং এই মুদ্রা জোড় গুলতে ট্রেড করার আগে এই বেপার গুলো মাথায় রাখতে হবে। G10 মুদ্রা G10 মুদ্রা হলো পৃথিবীর ১০টা মুদ্রা যেগুলো সবচেয়ে বেশি ট্রেড করা হয়ে থাকে। কারন এই মুদ্রা গুলার তারল্য সব থেকে বেশি। প্রত্যেক দিন ট্রেডাররা এই মুদ্রা গুলো বেশি কিনা বেচা করে থাকেন। এগুলো হলোঃ USD, EUR, GBP, JPY, AUD, NZD, CAD, CHF, NOK, SEK, DKK BRIICS BRIICS হলো পৃথিবীর ৬টি উদীয়মান জাতীয় অর্থনীতি। এই ৬টি দেশ হলঃ ব্রাজিল, রাশিয়া, ভারত, ইন্দনেশিয়া, চায়না এবং দক্ষিন আফ্রিকা।

Author: Mohammad Liton

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *