৪। ফরেক্স মার্কেটের আয়তন এবং তারল্যতা

পৃথিবীর অন্য সব অর্থনৈতিক বাজার গুলো যেমন নিউইয়র্ক শেয়ার বাজার অথবা লন্ডন শেয়ার বাজারের মত ফরেক্স মার্কেটের কোন শারিরিক ঠিকানা অথবা কোন নির্দিষ্ট বিনিময় কেন্দ্র নেই।

ফরেক্স মার্কেটকে OTC (over-the-counter) বা আন্তব্যাংক মার্কেট বলা হয় কারন এখানে বিনিময় ইলেক্ট্রনিকভাবে ব্যাংক গুলোর নেটওয়ার্ক এর দ্বারা পরিচালিত করা হয়ে থাকে। এজন্যই এই মার্কেট ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকে।

কোন নির্দিষ্ট ঠিকানা না থাকার জন্য ফরেক্স পৃথিবীতে এত জনপ্রিয় কারন আপনার শুধু ইন্টারনেট কানেকশন থাকেলেই আপনি এই মার্কেটে পৃথিবীর যেকোনো প্রান্ত থেকে অংশ নিতে পারবেন।

ফরেক্স OTC (over-the-counter) মার্কেট হওয়ার কারনে এটা পৃথিবীর সবচেয়ে বড় অর্থনীতিক বাজার এবং এই জন্যই এখানে বেশি সংখ্যক মানুষ ও কোম্পানি অংশনিয়ে থাকে। OCT মার্কেটের সুবিধা এটাই যে আপনি এখানে নিজেই আপনি কার সাথে ট্রেড করবেন, বিনিময় হার কেমন এখন, বাজারের অবস্থা সব কিছুই দেখে ট্রেড করতে পারবেন।

ফরেক্স মার্কেটে ডলার সবচেয়ে বেশি বিনিময় হয়ে থাকে, প্রায় ৮৪.৯% বিনিময় হয় ডলার। এরপর আশে ইউরো। প্রায় ৩৯.১% বিনিময় হয় ইউরো। প্রায় ১৯.০% জাপানি ইয়েন বিনিময় হয়।

ডলারকে এই বাজারের রাজা বলা হয়ে থাকে। কারন ৭৫% ট্রেড মেজোর জোড় গুলোতে করা হয়ে থাকে। কারন আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল(আইএমএফ) অনুসারে, মার্কিন ডলারের প্রায় ৬৪% বিশ্বের সরকারি বৈদেশিক মুদ্রা হিসেবে রিজার্ভ রয়েছে। কারন প্রায় সকল বিনিয়গকারি, ব্যাবসায়ি, কেন্দ্রীয় ব্যাংক ডলার এর মূল্য এর দিকে নজর রাখেন।

এগুলো ছাড়া আরও বেশ কিছু কারন রয়েছে যার জন্য ডলার ফরেক্স মার্কেটতে মুল ভুমিকা পালন করে।

  • যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতি হল পৃথিবীর সবচেয়ে বড় অর্থনীতি।
  • ইউ এস ডলার হলো পৃথিবীর মজুদ রাখা মুদ্রা।
  • যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতি সবচেয়ে বেশি তারল্যতাপূর্ণ ।
  • যুক্তরাষ্ট্রের রাজনৈতিক ব্যবস্থা স্থিতিশীল।
  • যুক্তরাষ্ট্র পৃথিবীর একমাত্র সামরিক পরাশক্তি।
  • ইউ এস ডলার সীমান্তের এক মাত্র বিনিময় মাধ্যম। উদাহরন স্বরুপ, তেল এর দাম ইউ এস ডলারে নিরধারন করা হয়। একে “পেট্রোডলার” বলে। সুতরাং মেক্সিকো যদি সৌদি আরাবিয়া থেকে তেল কিনতে চায় তাহলে তাকে ইউ এস ডলারে কিনতে হবে। মেক্সিকো এর কাছে যদি ডলার না থাকে তাহলে আগে তাকে পেসো বিনিময় করে ডলার কিনতে হবে। তারপর সে তেল কিনতে পারবে।

ফরেক্স মার্কেট এর গতিবিধিঃ

ফরেক্স মার্কেটে অংশ নিতে হলে প্রথমেই ফরেক্স মার্কেটের গতিবিধি বুঝতে হবে। ট্রেডিং এর পরিমান কেমন হচ্ছে, কোন মুদ্রার মূল্য কেমন যাচ্ছে, কোন মুদ্রা বেশি ট্রেড হচ্ছে সব কিছু লক্ষ রেখেই এই মার্কেটে আর্থিক ও বাণিজ্যিক লেন দেন হয়ে থাকে।

ট্রেডাররা সারাদিনের মুল্যের পরিবর্তন হওয়ার পরও কি পরিমান কিনা বেচা করতেছে তার উপর ভিত্তি করে মার্কেটে ট্রেডিং এর আয়তন বুঝা যায়।

ফরেক্স মার্কেটের তারল্যটা/লিকুইডিটি ব্যাপক পরিমানে বেশি। এই তারল্যতা হিসাব করা হয় একটি নিদ্রিষ্ট সময়ে কি পরিমান কিনা বেচা হয় তার উপর ভিত্তি করে। তারল্যতা খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়, কারন এটার দ্বারা বুঝা যায় যে মার্কেটে নির্দিষ্ট সময়ে কি পরিমান মুল্যের পরিবর্তন আসতে পারে।

এই মার্কেটে খুব স্বল্প পরিমান মুল্যের পরিবর্তন হলেও অনেক বড় পরিমান ট্রেড হয়ে থাকে। মার্কেটের এই তারল্যতা দিনের বিভিন্ন সময় এবং মুদ্রা জোড় এর মুল্যের পরিবর্তনের সাথে পরিবর্তন হতে থাকে। ফরেক্স মার্কেটে “ট্রেডিং সেশন” বলতে একটা বিষয় আছে যা পরবর্তিতে আলোচনা করা হবে।

Author: Mohammad Liton

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *