২০. টোকিয়ো সেশনে কখন আপনি ট্রেড করতে পারবেন ?

টোকিয়ো সেশন শুরু হয় 12:00 AM GMT থেকে। টোকিয়ো সেশনকে এসিয়ান সেশন বলা হয়ে থাকে কারন টোকিয়োকে এশিয়ার অর্থনৈতিক রাজধানী বলা হয়ে থাকে।

জাপান হলো পৃথিবীর তৃতীয় বৃহত্তম ফরেক্স ট্রেডিং সেন্টার। এতে অবাক হওয়ার কিছু নেই, কারন ইয়েন হলো পৃথিবীর ৩ নাম্বার বাণিজ্যিক মুদ্রা। ১৬.৫০% ফরেক্স এর লেনদেন ইয়েন এ হয়ে থাকে। ফরেক্স মার্কেটে দৈনিক এই সেশনে ২১% ট্রেড করা হয়ে থাকে।

নিচে টোকিয়ো সেশনে মেজোর মুদ্রা জোড় গুলোর পিপ পরিবর্তনের একটি চার্ট দেয়া হলঃ

This image has an empty alt attribute; its file name is 20.1.png

পিপ এর এই পরিবর্তনের মান গুলো পূর্বের ডাটা থেকে নেয়া হইছে। এগুলো একদম সঠিক বলা যাবে না, কারন মার্কেটের তারল্যতার পরিবর্তনের সাথে পিপ এর পরিবর্তনের মানেও পরিবর্তন দেখা যায়।

নিচে টোকিয়ো সেশনের কিছু বৈশিষ্ট্য নিয়ে আলোচনা করা হলঃ

১. টোকিয়ো সেশনে শুধু জাপানেই ট্রেড হয় না। এই হময় হংকং, সিঙ্গাপুর, এবং সিডনিতেও অঙ্ক ট্রেড হয়ে থাকে।

২. টোকিয়ো সেশনে মুলত কমার্শিয়াল কোম্পানি (রপ্তানিকারক) , সেন্ট্রাল ব্যাংক অংশ নিয়ে থাকে। আপনি জানেন যে,জাপানের অর্থনীতি মুলত রপ্তানি নির্ভর এবং চায়নাতে প্রচুর লেনদেন করে থাকে।যার ফলে এই সেশনে দৈনিক প্রচুর লেনদেন হয়ে থাকে।

৩. মার্কেটের তারল্যটা মাঝে মধ্যে অনেক কম হতে পারে। মাঝে মাঝে আপনার অনেক সময় অপেক্ষা  করতে হয় ট্রেড এর ফলাফল পাওয়ার জন্য।

৪. এই সময়ে এশিয়া প্যাসেফিক এর মুদ্রাজোড় ( AUD/USD, NZD/USD ) গুলোর মুল্যের পরিবর্তন অনেক বেশি দেখা যায়।

৫. যখন বাজারের তারল্যতা কম থাকে, তখন বেশিরভাগ মুদ্রা জোড়ের মুল্য একটা Range এর ভিতরে উঠা নামা করে। এই সময় short day trade করা উচিত। দিনের শেষের দিকে breakout হয়ে থাকে সাধারণত।

৬. দিনের শুরুতে বেশির ভাগ অর্থনৈতিক ডাটা প্রকাশিত হয়, যার ফলে ঐ সময় মার্কেটে অনেক ধরনের উঠা নামা দেখা যায়।

৭. টোকিয়ো সেশনে মার্কেটে যেরকম উঠা নামা যায়, এর প্রভাব অন্য সেশন গুলতেও পরে থাকে। অন্য সেশন গুলো তে ট্রেড করার সময় ত্রেদার রা টোকিয়ো সেশনে কি কি হইসে মার্কেটে সব কিছু জেনে তারপর ট্রেড করে।

৮. নিউইয়র্ক সেশনে মার্কেটে কোন বড় পরিবর্তন হয়ে থাকলে, এর প্রভাব টোকিয়ো সেশনে দেখা যায়।

টোকিয়ো সেশনে কোন মুদ্রা জোড়ে ট্রেড করা উচিত?

যেহেতু টোকিয়ো সেশনের সময় অস্ট্রেলিয়া এবং জাপানের অর্থনৈতিক খবর বের হয়, সেহেতে এই খবরের উপর ভিত্তি করে ট্রেড করা খুবই ভাল।

ইয়েন এর মুল্যের পরিবর্তন দেখা যায়, কারন জাপানিস কোম্পানিদের মধ্যে অনেক পরিমান ইয়েন এর হাত বদল চলে।

যেহেতু চায়না একটি একটি অর্থনৈতিক পরাশক্তি, এর ফলে কোন খবর যদি বের হয় তাহলে সাথে সাথে মার্কেটে অনেক বড় প্রভাব দেখা যায়।

যেহেতু অস্ট্রেলিয়া অর জাপান উভয় চায়নার উপর নির্ভরশীল, এই জন্য যখনি কোন অর্থনৈতিক খবর বের হয় সাথে সাথে AUD এবং JPY এর মূল্যে অনেক বেশি পরিবর্তন দেখা যায়।

Source https://www.babypips.com/learn/forex/tokyo-session

Author: Mohammad Liton

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *